‘ধর্ষণ অপরাধ’: এই মূলমন্ত্রে আগে দীক্ষা নিন

১. আমি জীবনে প্রথমবার ‘ধর্ষণ’ বিষয়টি নিয়ে সম্যক জ্ঞান পেয়েছিলাম ১৯৯৮ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে মানিক বিরোধী আন্দোলনের সময়। তখন আমার বয়স খুবই অল্প। প্রতিদিনের মিটিং মিছিল আমাকে কৌতুহলী করেছিল কি? না, মানুষের সংখ্যা আমাকে কৌতুহলী করেছিল। হাতে গোনা কয়েকজন প্রথমে প্রতিবাদ শুরু করেছিল। আমার মনে আছে, ছাত্রী হলের মেয়েদের রীতিমতো কাউন্সেলিং করতে হয়েছিল। কেন? তিনটি... Continue Reading →

দ্য সিটি অব লাইটঃ রাতের প্যারিস

কিচেন থেকে ইরাদকে ডাক দিয়ে বাবাই জানতে চাইলো, তুই কি এখন খাবি? খাবার মাইক্রোওভেনে দিবো? ইরাদের চটপট উত্তর, দে। আমি আসতেছি। এই কথপোকথনের সময় ছিল ৬টা বাজার মাত্র পাঁচ মিনিট আগে। কেন সময়টা বললাম? কারণ, আমাদের ট্রেন ছাড়ার সময় ভোর ৬:১৫। আমাদের বাসা থেকে বানহফে (ট্রেন স্টেশন) পায়ে হেঁটে যেতে সময় লাগে প্রায় ৭-৮ মিনিটের... Continue Reading →

কেউ কথা রাখেনি

কেউ কথা রাখেনি, তেত্রিশ বছর কাটলো, কেউ কথা রাখেনি ছেলেবেলায় এক বোষ্টুমী তার আগমনী গান হঠাৎ থামিয়ে বলেছিল                       শুক্লা দ্বাদশীর দিন অন্তরাটুকু শুনিয়ে যাবে তারপর কত চন্দ্রভূক অমাবস্যা চলে গেলো, কিন্তু সেই বোষ্টুমী                       ... Continue Reading →

শ্রম বিভাজন !!

দিনশেষে নারীবাদী মায়েরাই তাদের পুত্র সন্তানদের আন্ডারওয়্যার থেকে শুরু করে সব কাপড় ধুয়ে দেন, হোক না সে ধাড়ি ছেলে! রান্না করে ছেলেকে খাওয়ানোর জন্য যোগ্য বউ এর খোঁজ করেন। ঝাড়ু হাতে ছেলেকে ঘর পরিস্কার করার চিন্তা দু্ঃস্বপ্নেও আসে না। আর অন্য মায়েরদের কথা তো ছেড়েই দিলাম। মেয়েরা যে বোঝা এটি ভাবা তো সেই কত পুরোনো... Continue Reading →

ফোর্সড অ্যাবরশন ও মাতৃত্বের অপমৃত্যুঃ নারীর শরীর, ইচ্ছা/অধিকার বনাম জবরদস্তি

পাবলিক হেলথ নিয়ে  একটি গবেষনার কাজে কোন একটি সরকারী হাসপাতালের ওটির সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম।ভেতর থেকে দু’ধরনের চিৎকার ভেসে অাসছিল। ‘রোগী‘র আর ডাক্তারের। আশেপাশের সবাই মুখ পাংশু করে দাঁড়িয়ে ছিল। তাদেরও সিরিয়াল রয়েছে। ‘হারামজাদী পেট বাঁধাবি,আবার চিৎকারও করবি!! খবরদার একটা শব্দ যেন না শুনি। পেট বাঁধানোর সময় তোদের মনে থাকে না?’ এই বলে আরও নানারকম গালির... Continue Reading →

বাতাসে লাশের গন্ধ

– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ আজো আমি বাতাসে লাশের গন্ধ পাই আজো আমি মাটিতে মৃত্যূর নগ্ননৃত্য দেখি, ধর্ষিতার কাতর চিৎকার শুনি আজো আমি তন্দ্রার ভেতরে… এ দেশ কি ভুলে গেছে সেই দু:স্বপ্নের রাত, সেই রক্তাক্ত সময় ? বাতাসে লাশের গন্ধ ভাসে মাটিতে লেগে আছে রক্তের দাগ। এই রক্তমাখা মটির ললাট ছুঁয়ে একদিন যারা বুক বেঁধেছিলো। জীর্ণ... Continue Reading →

ভালবাসার সময় তো নেই

– রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ ভালবাসার সময় তো নেই ব্যস্ত ভীষন কাজে, হাত রেখো না বুকের গাড় ভাজে। ঘামের জলে ভিজে সাবাড় করাল রৌদ্দুরে, কাছএ পাই না, হৃদয়- রোদ দূরে। কাজের মাঝে দিন কেটে যায় কাজের কোলাহল তৃষ্নাকে ছোয় ঘড়ায় তোলা জল। নদী আমার বয় না পাশে স্রোতের দেখা নেই, আটকে রাখে গেরস্থালির লেই। তোমার দিকে... Continue Reading →

তুই কি আমার দুঃখ হবি

– আনিসুল হক তুই কি আমার দুঃখ হবি? এই আমি এক উড়নচন্ডী আউলা বাউল রুখো চুলে পথের ধুলো চোখের নীচে কালো ছায়া। সেইখানে তুই রাত বিরেতে স্পর্শ দিবি। তুই কি আমার দুঃখ হবি? তুই কি আমার শুষ্ক চোখে অশ্রু হবি? মধ্যরাতে বেজে ওঠা টেলিফোনের ধ্বনি হবি? তুই কি আমার খাঁ খাঁ দুপুর নির্জনতা ভেঙে দিয়ে... Continue Reading →

Create a website or blog at WordPress.com

Up ↑