আব্বুর চিরকুট আর দেশ থেকে আসা বাক্সভর্তি ভালবাসা

আমার পুত্রের মতো আমিও অপেক্ষায় থাকি কখন ঈদ উপলক্ষ্যে পাঠানো তার নানের, মানে আম্মুর পার্সেলটা আসবে। পুত্র আর আমার পার্থক্য হচ্ছে, উনি একটু পরপর আমাকে জিজ্ঞেস করে অস্থির করতে পারে যে, কখন নান এর গিফট প্যাকেট আসবে, আমি কাউকে অস্থির করতে পারিনা!! নিজেই একটু পরপর ডেলিভারি স্ট্যাটাস চেক করি যে,কতদূর পৌঁছালো। মনে করেন, ৫ মিনিট... Continue Reading →

কর্কট রোগ

গতকালকে যখন আমি ফোন ধরে কাঁদছি, আম্মু যেন দেখেও দেখলো না, বলল, রোগও আছে, চিকিৎসাও আছে। এমন কেন করছো? চিকিৎসা করিয়েই তো এত বছর চললাম... আর আব্বু পাশে থেকে সমানে বলে যাচ্ছে, তোমাকে এতবার নিষেধ করলাম ওকে জানাতে,কেন জানালে? ২০০৯ এ যখন হঠাৎ করেই আম্মুর ক্যান্সার সনাক্ত হলো, আমাদের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছিল! অনেক কষ্টের... Continue Reading →

বাবা দিবসের শুভেচ্ছা আর ভালবাসা

ছোটবেলায় আমাদের বন্ধুদের ভেতর শুধু আমার আর ঐশীর বাবা ক্যাম্পাসে থাকতো না। দুজনেই চাকরী সূত্রে নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকতেন। আমাদের দুজনের বাবাদের নিয়ে মানুষের কৌতুহলের সীমা ছিল না। তখন ছোট ছিলাম, আমাদের বন্ধুরা জানতে চাইতো আমাদের বাবা কোথায়!! আমার তো মনে আছে, ক্যাম্পসের অনেক মানুষই আমার কাছ থেকে সেসময় খবর বের করার চেষ্টা করতেন যে,... Continue Reading →

বয়স!

বয়স হচ্ছে!! বার্ধক্যের রোগও শরীরের সাথে জুড়তে শুরু করে দিয়েছে। মনে হয় এই তো সেদিন আমি স্কুলে পড়তাম। কি অানন্দের ছিল সেসব দিনগুলো। মাঝে মাঝেই চিন্তা করি, জীবনের সবচেয়ে অানন্দের সময় কোনটা ছিল? তখন মনে হয়, অাসলে একেক সময়ের আনন্দের ধরনগুলো একেক রকমের হয়। সেই বোধগুলোও হয় ভিন্ন ভিন্ন। শৈশবে মায়ের ছাঁয়ায় থাকার আনন্দ বা... Continue Reading →

Europe packed into a park!

Europa Park, we can’t resist taking our three-year-old son there! It’s the continent’s second-biggest theme park after Disneyland Paris and is divided into 15 nationally-themed areas. Set in a lush area near Germany’s Black Forest, it’s just moments from the French border. If you want to see Europe, just go to the Europa Park. You... Continue Reading →

আমার শখ – ফটোগ্রাফি

গ্রীষ্মের দুপুরে ক্যামেরা কাঁধে ঝুলিয়ে মা-ছেলের ঘুরে বেড়ানো..... আর আমার গ্রীষ্মের আনন্দের রঙগুলোকে কে ক্যামেরাবন্দী করা....... এই তো বেশ মা-ছেলের কাটানো স্বপ্নিল মুহুর্তগুলো.... আজকাল সব কিছুকেই ক্যামেরাবন্দী করতে ইচ্ছে করে। মনে হয়, ইস একটু পরেই যদি না থাকি এই সুন্দর পৃথিবীতে.....  আমার ছেলে একসময় বড় হয়ে তার মায়ের তোলা এই মুহুর্তগুলো দেখবে। হয়তো এরই মাঝে... Continue Reading →

তুমি….আমি আর বন্ধুরা

তখন আমি ক্লাস ফাইভে পড়ি। বৃত্তি পরীক্ষার জন্য কয়েকজনকে সিলেক্ট করা হয়েছে যাদেরকে স্কুলের ক্লাস শুরু হবার আগেও স্পেশাল ক্লাস করতে হতো ভোর বেলায়। অতি আগ্রহ নিয়ে ঘুম থেকে উঠে ক্লাস বেশিরভাগ দিনই খানিকটা আগে পৌঁছে যেতাম। দেখতাম ক্লাসে আরেকজন ছেলেও প্রায়ই আগে আসছে। ছেলেদের সাথে বৈরীপূর্ণ মনোভাব ছোটবেলা থেকেই প্রকট;তাই এটা তখন থেকেই সর্বজন... Continue Reading →

আমার দিনগুলো সব রং চিনেছে তোমার কাছে এসে…শুধু তোমায় ভালবেসে…

অনেক আগের কথা.......আমার বাসা থেকে সামান্য বের হয়ে প্রান্তিকের দিকে মোড় ঘুরলেই অনেক দূর থেকেও যাত্রি ছাউনিটা দেখা যেতো স্পষ্ট। তবে মানুষ কারা আছে সেটা বোঝা খানিকটা কষ্টকর ছিল। তারপরেও সেই ছোটবেলা থেকেই সেই মোড়টা ঘুরতাম দুরুদুরু বুকে.....ছাউনিতে যাকে দেখবো ভাবছি ....থাকবে তো...? আবার মনে হতো...সে কিভাবে জানবে আমি এখন বের হবো....তো...? থাকবেই না....তাও ১%... Continue Reading →

Create a website or blog at WordPress.com

Up ↑